রকেট এ্যাপ দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন বা এনআইডি রিইস্যু ফি পরিশোধ করুন

রকেট এ্যাপ দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন বা এনআইডি রিইস্যু ফি পরিশোধ করুন

রকেট এ্যাপ দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফি পরিশোধের নিয়ম
 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করার জন্য আবেদন করেন কিংবা ভোটার আইডি কার্ড উত্তোলনের জন্য আবেদন করেন উভয় ক্ষেত্রেই সরকারি ফি জমা দিতে হয়। বিনা ফি তে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন বা উত্তোলন করার কোন সুযোগ নেই। ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফি বা উত্তোলনের ফি সবার জন্য সব সময় যে একই হবে সেটিও ঠিক নয়। একাধিকবার আবেদন করলে ফি এর পরিমান বৃদ্ধি পায়। আবার কিছু কিছু তথ্য সংশোধনের ক্ষেত্রে কম টাকা পরিশেধ করতে হয়। তাই ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন অথবা রিইস্যুর আবেদন করার আগে অবশ্যই ফি হিসাব করে নিয়ে জমা দেয়া উচিত। 

যদিও রকেট এ্যাপ দিয়ে নিজেই ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন কিংবা উত্তোনের ফি খুব সহজেই পরিশোধ করা যায়।  তবুও অনেকে এ বিষয়ে জানে না বিধায় বিভিন্ন দোকান/প্রতিষ্ঠানে গিয়ে ফি পরিশোধ করে থাকেন। এতে করে প্রয়োজনের তুলনা বেশ কিছুটা সময় ব্যয় হয়। 
 

যদি কারো মোবাইলে রকেট এ্যাপ থাকে তাহলে নিম্নোক্ত পদ্ধতি অনুসারে খুব সহজেই ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন কিংবা উত্তোলনের ফি জমা দিতে পারবেন। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফি পরিশোধ

প্রথমে মোবাইলে থাকা রকেট এ্যাপ্লিকেশনটি ওপেন করতে হবে। এ্যাপ্লিকেশনের ভিতর Add Money, Mobile Recharge, Bill Pay ইত্যাদি মেনু দেখা যাবে। এদের মধ্য থেকে Bill Pay অপশনে ক্লিক করতে হবে। তাহলে এ্যাপটি লোড হয়ে নিচের ছবির মত পেজ আসবে। 

এখানে সার্স বক্সে 1000 টাইপ করতে হবে। ভোটার আইডি কার্ড সংশোধনের বিলার আইডি হচ্ছে ১০০০। বিলার আইডি লেখার সাথে সাথে নিচে EC Bangladesh লেখা আসবে সেটির উপর ক্লিক করলে এ্যাপ পুনরায় লোড হয়ে নিচের ছবির মত পেজ আসবে। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফি পরিশোধ
এই পেজে বিলার আইডি লেখা থাকবে, বিলার নেমও লেখা থাকবে। তৃতীয় ঘরে Nid Number লিখতে হবে। সঠিকভাবে আবেদনকারীর এনআইডি নম্বরটি লিখবেন। তার নিচের ঘরে Application Type এখানে ক্লিক করে 1, 2, 3, 4 এই সংখ্যাগুলোর মধ্যে যে কোন একটি লিখতে হবে। এখন কথা হচ্ছে 1 লিখলে কিসের আবেদন হয়, 2 লিখলে কিসের আবেদন হয়, 3 লিখলে কিসের আবেদন হয় এবং  4 লিখলেই বা কিসের আবেদন হয় এগুলো সম্পর্কে ভালো করে না জানলে ভুল ফি পরিশোধ হয়ে যায়।

Application Type এর ঘরে 1 লিখে ফি পরিশোধ করলে ভোটার আইডি কার্ডের উপর যে সব তথ্য লেখা থাকে যেমন- নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, জন্ম তারিখ, গ্রাম, পোস্ট কোড, গ্রাম, জন্ম জেলা, রক্তের গ্রুপ ইত্যাদি সংশোধন করা যায়। 

Application Type এর ঘরে 2 লিখে ফি পরিশোধ করলে যে সকল তথ্য ভোটার আইডি কার্ডের উপর লেখা থাকে না যেমন- স্বামী/স্ত্রীর নাম, পিতা-মাতা ও স্বামীর এনআইডি নম্বর, জন্ম সনদের নম্বর, টিন নম্বর, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও পাসপোর্ট নম্বর, স্থায়ী ঠিকানা ইত্যাদি তথ্য সংশোধন করা যায়। 

Application Type এর ঘরে 3 লিখে ফি পরিশোধ করলে যেসকল তথ্য ভোটার আইডি কার্ডের উপর লেখা থাকে এবং যেসকল তথ্য কার্ডের উপর লেখা থাকে না উভয় তথ্যই সংশোধন করা যায়।

Application Type এর ঘরে 4 লিখে ফি পরিশোধ করলে ভোটার আইডি কার্ড রিইস্যু বা উত্তোলনের আবেদন করা যায়।

Pay For এখানে নিজের জন্য ফি পরিশোধ করলে Self সিলেক্ট করবেন। আর যদি অন্যের জন্য ফি পরিশোধ করেন তাহলে Other সিলেক্ট করবেন। Other সিলেক্ট করলে আবেদনকারীর মোবাইল নম্বর দেয়ার জায়গা আসবে। সেখানে আবেদনকারীর মোবাইল নম্বরটি লিখে দেবেন। তারপর VALIDATE বাটনে ক্লিক করবেন। তাহলে পেজটি লোড হয়ে নিচের ছবির মত পেজ আসবে। 

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ফি
আপনার ক্ষেত্রে কত টাকা ফি জমা দিতে হবে সেটি এই পেজে বলে দেবে। যেমনটি উপরের ছবিতে দেখিয়ে দিচ্ছে, Bill Amount Tk. 345 only। আপনার ক্ষেত্রেও এমনভাবে দেখিয়ে দেবে। তারপর OK বাটনে ক্লিক করে দেবেন তাহলে পেজটি লোড হয়ে নিচের ছবির মত আসবে। 

 
এই পেজে বিলার নেম দেখাবে, এনআইডি নম্বর দেখাবে, এ্যাপ্লিকেশন টাইপ, টাকার পরিমান এবং যে নম্বর থেকে বিল পরিশোধ করছেন সেই মোবাইল নম্বর দেখাবে। 

এখন এখানে রকেট একাউন্টের পিন নম্বর দিতে হবে। তারপর রকেট আইকনের উপর চেপে ধরে রাখতে হবে। তাহলে ফি পরিশোধ হয়ে যাবে এবং পেজটি লোড হয়ে নিচের ছবির মত পেজ আসবে। 

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন বা উত্তোলন ফি পরিশোধ

এখানে পরিশোধিত বিলের যাবতীয় তথ্যাদি দেখাবে। আপনি চাইলে এই ভাউচারটি সেভ করে রেখে দিতে পারেন এবং অফিসে আবেদন করার সময় প্রিন্ট করে আবেদনের সাথে জমা দিতে পারেন।

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করার জন্য বা ভোটার আইডি কার্ড রিইস্যু/উত্তোলনের আবেদনের জন্য নির্ধারিত ফি উল্লেখিত উপায়ে খব সহজেই পরিশোধ করতে পারবেন। রকেট এ্যাপের মাধ্যমে ভোটার আইডি কার্ডের ফি পরিশোধ সম্পর্কে যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে কমেন্টস করবেন। আপনাদের প্রশ্নের উত্তর দিতে চেষ্টার করবো। লেখাটি ভালো লাগলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করার অনুরোধ রাইলো। সবাইকে ধন্যবাদ.....।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন