আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই - ২১ টাকায় ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি - Nid Online Copy Download

আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই - ২১ টাকায় ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি - Nid Online Copy Download

আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই

যদি কোন নতুন ভোটার বলেন অনলাইন থেকে আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই, তাহলে সেটা সম্ভব। কারণ নতুন ভোটার হওয়ার পর অনলাইন থেকে তাদের ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করা যায় ফ্রিতে। কিন্ত যদি কোন পুরাতন ভোটার বলেন অনলাইন থেকে আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই, তাহলে সেটা সম্ভব নয়। কারন পুরাতন ভোটারদের ফ্রিতে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার কোন সুযোগ নেই। তার জন্য সর্বনিম্ন ২৩০ টাকা সরকারি ফি জমা দিয়ে আবেদন করার প্রয়োজন পড়ে। তবে নতুন বা পুরাতন সকল ভোটারই তাদের ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন মাত্র ২১ টাকা সরকারি ফি জমা দিয়ে। হ্যা, এমনই একটা উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত উল্লেখ করবো, যেখানে মাত্র ২১ টাকা রকেট/বিকাশ/নগদ থেকে পরিশোধ করে যে কেউ তার ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবে।


ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড পদ্ধতি:- 

অনলাইন থেকে ভোটার আইডি কার্ডের অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে হলে প্রথমে https://prottoyon.gov.bd ঠিকানায় ভিজিট করতে হবে এবং একটি একাউন্ট খুলতে হবে। 

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি

একাউন্ট খুলতে ফ্রি একাউন্ট খুলুন অপশনে এ ক্লিক করুন তারপর নাগরিক অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে সরাসরি নাগরিক একাউন্ট তৈরীর পেজে নিয়ে যাবে। 

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি

এই ফরমটি পূরণ করার জন্য ১০ অথবা ১৭ সংখ্যার এনআইডি নম্বর, জন্ম তারিখ এবং মোবাইল নম্বর লাগবে। ফরমটি সঠিকভাবে পূরণ করে নিবন্ধন করুন বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড

নিবন্ধন করুন বাটনে ক্লিক করার পর পেজটি লোড হয়ে উপরের ছবির মত একটি পেজ আসবে এবং মোবাইলে ৬ সংখ্যার একটি ভেরিফিকেশন কোড আসবে। কোডটি প্রবেশ করিয়ে জমা দিন বাটনে ক্লিক করতে হবে। তাহলেই রেজিস্ট্রশন হয়ে যাবে এবং মোবাইলে পাসওয়ার্ড আসবে।

অনলাইন কপি ডাউনলোড
 
এখন মোবাইল নম্বর ও ম্যাসেজে পাওয়া পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করতে হবে। লগইন করলে নিচের ছবির মত ড্যাশবোর্ড ওপেন হবে।
 
জাতীয় পরিচয়পত্র অনলাইন কপি
 
উপরের ছবিতে রেড মার্ক করা অংশে ক্লিক করতে হবে। তাহলে পেজটি লোড হয়ে জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য প্রিন্টের অপশনে নিয়ে যাবে। সেখানে আপনার স্মার্ট কার্ডের নম্বর ও জন্ম তারিখ দেখা যাবে। সেখান থেকে প্রিন্ট করুন বাটনে ক্লিক করতে হবে। 
 
জাতীয় পরিচয়পত্র প্রিন্ট

প্রিন্ট করুন বাটনে ক্লিক করার সাথে সাথে ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড করার জন্য নির্ধারিত যে খরচ সেগুলো দেখা যাবে। সর্বমোট ২১ টাকা ৬৩ পয়সা খরচ হবে।

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ফি পরিশোধ

 এখান থেকে পরিশোধ করুন বাটনে ক্লিক করতে হবে। পেজটি লোড হয়ে ফি পরিশোধের অপশনে চলে আসবে। এখানে ডেবিট কার্ড, মোবাইল ব্যাংকিং এবং নেট ব্যাংকিং এর মাধ্যমে ফি পরিশোধ করা যাবে।

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ফি পরিশোধ মাধ্যম
ফি পরিশোধ করার জন্য মোবাইল ব্যাংকিং অপশন সিলেক্ট করুন। তারপর বিকাশ অথবা রকেট অথবা নগদ একাউন্ট অপশনে ক্লিক করুন। আমি রকেট একাউন্ট থেকে ফি পরিশোধ করেছি। আপনি আপনার পছন্দমত একটি মাধ্যম সিলেক্ট করুন। 
ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি সরকারি ফি

ফি পরিশোধের মাধ্যম সিলেক্ট করার পর ১ নং ছবির মত একটি পেজ আসবে। এখানে Mobile Account এর ঘরে আপনার বিকাশ/রকেট/নগদ এর মোবাইল নম্বর ব্যবহার করুন। একাউন্ট নম্বরের শেষ অতিরিক্ত সংখ্যা থাকলে অবশ্যই সেটি ব্যবহার করুন। PIN এর ঘরে আপনার পিন নম্বরটি দিন এবং SUBMIT বাটনে ক্লিক করুন। 
 
SUBMIT বাটনে ক্লিক করলে পেজটি লোড হয়ে ২ নং ছবির মত পেজ আসবে। এবং আপনার মোবাইল নম্বরে একটি Security Code কোড আসবে। কোডটি প্রবেশ করিয়ে Go বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোডের জন্য নির্ধারিত ফি পরিশোধ হয়ে যাবে এবং পেজটি লোড হয়ে নিচের ছবির মত পেজ আসবে। 

 আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই

এখানে আপনার পেমেন্ট সম্পর্কিত তথ্য দেখাবে, আবেদনের আইডি নম্বর দেখাবে এবং আপনার ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি রঙ্গিন পিডিএফ ফরমেটে ডাউনলোড করার জন্য একটি লিংক (রেড মার্ক করা অংশ) দেবে। আপনি মাত্র একটি ক্লিক করেই আপনার ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন।

আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই


ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপিটি ডাউনলোড করে সংরক্ষণ করে রেখে দেবেন এবং এই অনলাইন কপি দিয়ে আপনার প্রয়োজনীয় সব ধরণের কাজ করতে পারবেন। শুধু একবারই ডাউনলোড হবে, বার বার ডাউনলোড করা যাবে না। পুনরায় ডাউনলোড করতে হলে আবার ফি পরিশোধ করতে হবে। ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপিটি বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের সার্ভার থেকে লোড হয় বিধায় এটির তথ্য সম্পূর্ণ সঠিক। অনলাইন থেকে এই একটি মাত্র উপায়েই পুরাতন ভোটাররা তাদের ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারে। জরুরী মূহূর্তে এভাবে আপনার ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড করে ব্যবহার করা পারেন।

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে কমেন্টস করে জানাবেন আশা করি সমাধান দেয়ার চেষ্টা করবো। লেখাটি ভালো লাগলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করার অনুরোধ রইলো। ধন্যবাদ...।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন