নতুন ভোটারদের হাতের ছাপ ম্যাচ ফাউন্ড (Nid Match Found) হলে করণীয় - এনআইডি সেবা

নতুন ভোটারদের হাতের ছাপ ম্যাচ ফাউন্ড (Nid Match Found) হলে করণীয়

নতুন ভোটারদের হাতের ছাপ ম্যাচ ফাউন্ড (Match Found) হলে করণীয়

 

বর্তমান সময়ে লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, নতুন ভোটারদের হাতের ছাপ ম্যাচ ফাউন্ড (Nid Match Found) এর সমস্যা প্রচুর পরিমানে বৃদ্ধি পেয়েছে। নতুন ভোটার হওয়ার পর যাদের হাতে ছাপ ম্যাচ ফাউন্ড হচ্ছে তারা তাদের এনআইডি নম্বর দিয়ে নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করতে পারছে না ফলে এনআইডি কার্ডও ডাউনলোড করতে পারছে না। এমনকি তাদের ভোটার তথ্য ব্যবহার করে কোন প্রকার কাজই করতে পারছে না। পূর্বে উপযুক্ত কারণ না থাকলে ভোটারদের Nid Match Found এর সমস্যা দেখা যেত না। কিন্ত বর্তমানে পরিস্থিতিটা একটু ভিন্ন হয়ে দাড়িয়েছে। কেন নতুন ভোটারদের Nid Match Found হয়? হাতের ছাপ ম্যাচ ফাউন্ড হলে করণীয় কি বা কিভাবে এ সমস্যা সমাধান করা যায় সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দিতে চেষ্টা করবো এ পোষ্টের মাধ্যমে। 


নতুন ভোটারদের Nid Match Found কি?

যখন কোন ব্যক্তি সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিসে নতুন ভোটার হওয়ার আবেদন করে তখন উপজেলা নির্বাচন অফিসে থেকে বিভিআরএস (BVRS- Bangladesh Voter Registration System) সফটওয়্যারের মাধ্যমে ভোটারের যাবতীয় তথ্য এন্ট্রি করা হয়। সেই সাথে ভোটারের দশ আঙ্গুলের ছাপ নেয়া হয়, ছবি তোলা হয়, স্বাক্ষর নেয়া হয় এবং চোখের আইরিশ স্ক্যান করে নেয়া হয়। 

এসব তথ্যগুলো প্রুফ করার পর মেইন সার্ভারে আপলোড করা হয়। ডাটা আপলোড করার পর শুধুমাত্র ভোটারের ১০ আঙ্গুলের ছাপ মেইন সার্ভারে থাকা বাকি ভোটারদের হাতের ছাপের সাথে অটোমেটিক ক্রসম্যাচ করতে থাকে। এই প্রসেস সম্পন্ন হতে বেশ কিছু সময় লাগে। হাতের ছাপ ক্রসম্যাচের সময় কোন না কোন ভোটারের হাতের ছাপের সাথে নতুন প্রেরণ করা ভোটারের হাতের ছাপ মিলে গেলেই ভোটারের স্ট্যাটাস Match Found হয়ে যায়।

যে কারণে নতুন ভোটারদের Nid Match Found হয়:- 

সাধারণত দুইটা কারণে একজন নতুন ভোটারের Nid Match Found হতে পারে।

প্রথমত, যদি কোন ব্যক্তি একাধিবার ভোটার হয়ে থাকে তাহলে তার হাতের ছাপ ম্যাচ ফাউন্ড হয়ে যায়। প্রথমবার ভোটার হওয়ার পর যতবারই ভোটার হবেন সবগুলো ভোটার তথ্যের স্ট্যাটাস Match Found হয় বা ডুপ্লিকেট হয়ে যায় এবং পরবর্তীতের হওয়া ভোটার তথ্য দিয়ে কোন কাজ করা যায় না। 

দ্বিতীয়ত, কোন ব্যক্তিকে নতুন ভোটার করার সময় অপারেটরের অসাবধানতার কারণে নতুন ভোটারের Nid Match Found হতে পারে। যখন ভোটারের হাতের ছাপ নেয়া হয় তখন একটু লক্ষ্য করে দেখবেন কম্পিউটারের স্ক্রিনে দশটি আঙ্গুল দেখা যায় এবং কিছু কিছু আঙ্গুলের মাথায় সবুজ রং থাকে এবং কিছু আঙ্গুলের মাথায় হলুদ রং থাকে। 

আঙ্গুলের মাথায় সবুজ রং থাকা মানে হাতের ছাপের কোয়ালিটি ভালো হয়েছে। আর যদি কোন আঙ্গুলের মাথায় হলুদ রং থাকে তাহলে বুঝতে হবে ওই আঙ্গুলের ছাপের কোয়ালিটি খুবই দুর্বল হয়েছে। 

দুর্বল কোয়ালিটির হাতের ছাপ নিয়ে সেটি মেইন সার্ভারে প্রেরণ করলে অন্য ভোটারের হাতের ছাপের সাথে মিলে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই যারা নতুন ভোটার হবেন তারা হাতের ছাপ দেয়ার সময় কম্পিউটার স্ক্রিনে লক্ষ্য করবেন সবগুলো আঙ্গুলের মাথায় যেন সবুজ রং থাকে। যদি হলুদ রং থাকা অবস্থায় ডাটা সেভ করে নেয় তাহলে বলবেন হাতের ছাপের কোয়ালিটি ভালো হয়নি পুনরায় ছাপ নিতে। হাতের ছাপের কোয়ালিটি যদি ভালো হয় তাহলে আপনার তথ্য মেইন সার্ভারে যাওয়ার পর তা ম্যাচ ফাউন্ড হবে না।

নতুন ভোটারের Nid Match Found হলে করণীয় কি?


যদি হাতের ছাপ ম্যাচ ফাউন্ড হয়েই যায় তাহলে তা সমাধান করার জন্য একটি মাত্র উপায় বর্তমানে চালু আছে। আর তা হচ্ছে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিসার বরাবার লিখিতভাবে আবেদন করা। সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিসার বরাবর আবেদন করলে তিনি আপনার আবেদন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ করবেন এবং সেখান থেকে আপনার ভোটার তথ্য ঠিক করে দেবে। 

উপজেলা নির্বাচন আফিসার বরাবর যে আবেদনটি করবেন সেই আবেদনের সাথে একটি অঙ্গীকারনামা জমা দেয়া যেতে পারে। অঙ্গীকারনামায় উল্লেখ থাকবে আপনি একবারই ভোটার হয়েছেন একাধিকবার ভোটার হননি। যদি একাধিকবার ভোটার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা যাবে এবং আপনি তা মেনে নিতে বাধ্য থাকবেন। 

উপজেলা নির্বাচন অফিসার বরাবর যে আবেদনটি করবেন সেটির একটি নমুনা নিম্নে দেয়া হলো:-


তারিখঃ --/--/----
বরাবর.
উপজেলা নির্বাচন অফিসার
ফরিদপুর সদর, ফরিদপুর।

বিষয়ঃ ভোটার তথ্য ম্যাচ ফাউন্ড হওয়া প্রসঙ্গে।

জনাব,

যথাবিহিত সম্মান প্রদর্শন পূর্বক বিনীত নিবেদন এই যে, আমি মোঃ আরিফুজ্জামান, পিতা মোঃ দেলোয়ার হোসেন, গ্রাম/মহল্লা- ফরিদপুর, এনআইডি নম্বর- ১২৩৪৫৬৭৮৯০, জন্ম তারিখ- ০১/০৫/২০০২। আমি ২০২১ সালের একজন  নতুন ভোটার এবং এই প্রথমবার আমার নিজ এলাকায় ভোটার হিসেবে নিবন্ধিত হই। কিন্ত এখন পর্যন্ত আমি এনআইডি কার্ড পাইনি এবং আমার এনআইডি নম্বর ব্যবহার করে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে পারছি না। এমতাবস্থায় আপনার দপ্তরে যোগাযোগ করে জানতে পারলাম যে, আমার ভোটার তথ্য ম্যাচ ফাউন্ডের আওতায় এসেছে।  আমি প্রথমবার ভোটার হয়েছি তারপরও কিভাবে আমার ভোটার তথ্য ম্যাচ ফাউন্ডের আওতায় এসেছে এ বিষয়ে আমার কোন ধারণা নেই। এদিকে এনআইডি কার্ড ছাড়া আমি আমার দৈনন্দিন কাজে প্রচুর পরিমাণ ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছি।

অতএব, মহোদয়ের নিকট আমার বিনীত প্রার্থনা আমার ভোটার তথ্যের ম্যাচ ফাউন্ড সমস্যার সমাধান করে আমার দৈনন্দিন কাজে এনআইডি কার্ড ব্যবহারের সুযোগ করে দিতে আপনার সদয় মর্জি হয়। 

সংযু্ক্তিঃ- অঙ্গীকারনামা ০১ (এক) পাতা। 

বিনীত নিবেদক,

মোঃ আরিফুজ্জামান
পিতা মোঃ দেলোয়ার হোসেন
গ্রাম/মহল্লা- ফরিদপুর, ফরিদপুর সদর, ফরিদপুর
এনআইডি নম্বর- ১২৩৪৫৬৭৮৯০
মোবাইল নং- ০১৭১ - - - - - -


উপরোক্তভাবে একটি আবেদন কম্পিউটারে টাইপ করে অথবা সাদা কাগজে হাতে লিখে নির্বাচন অফিসারের দপ্তরে জমা দেবেন। তিনি আপনার আবেদন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ করলে সেখান থেকে আপনার ভোটার তথ্যের ম্যাচ ফাউন্ড সমস্যার সমাধান করে দেবে। 

আপনাদের সুবিধার জন্য উপরোক্ত আবেদন ও একটি অঙ্গীকারনামা  পিডিএফ আকারে প্রস্তুত করে দিয়ে দেবো। প্রয়োজনে নিচের ডাউনলোড লিংকে ক্লিক করে ডাউনলোড করি নিতে পারেন।

উরোক্ত পরামর্শটি সম্পূর্ণ আমার ব্যক্তিগত পরামর্শ। আপনারা চাইলে এই পরামর্শ অনুযায়ী আবেদন করতে পারেন অথবা সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিসে গিয়ে তাদের নিকট থেকে পরামর্শ গ্রহণ করতে পারেন। 

নতুন ভোটারদের Nid Match Found সংক্রান্ত সমস্যা নিয়ে যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে কমেন্টস করবেন। আপনাদের প্রশ্নের উত্তর দিতে অবশ্যই চেষ্টা করবো। লেখাটি যদি ভালো লাগে তাহলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করার অনুরোধ রইলো। ধন্যবাদ......!

 

অঙ্গীকারনামা ডাউনলোড


নতুন ভোটারদের হাতের ছাপ ম্যাচ ফাউন্ডের আবেদন ডাউনলোড

6 মন্তব্যসমূহ

  1. Application 1 boshor dhora Nirbachan officer ke diasi shomadhan dissa na. Koronio ki?

    উত্তরমুছুন
    উত্তরগুলি
    1. সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিসারের সাথে দেখা করে আপনার আবেদন দ্রুত সমাধান করে দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন। তাছাড়া দ্বিতীয় কোন পথ নেই আপাতত।

      মুছুন
  2. ভাইয়া....

    আমার সমস্যাটা একটু সমাধান দেন...

    আমার স্থায়ী ঠিকানা - - বাগেরহাট

    কিন্তু আমি যখন ভোটার হই

    বর্তমান+স্থায়ী উভয়ই বয়রা,খুলনা একই নামে দেওয়া হইছে
    এবং...nid er server theke dkchi

    ((আমি স্থয়ী ঠিকানায় ভোটার)))--যদিও আমার দুই ঠিকানা বয়রা খুলনা দেওয়া...

    তো কয়েকদিন আগে.. form-2 দিয়ে সংশোধন করাইলাম--বর্তমান ঠিকানা টা --বাসা চেন্জ করছি মানে পাশের একটা বাসায়..

    তো আজ সাইট এ ঢুকে দেখলাম এই চেন্জ টাও স্থায়ী ঠিকানায় অন্তর্ভুক্ত হইছে((যার পাশে আমি ভোটার লেখা))


    এখন উপায় কি???


    আমার স্থায়ী ঠিকানা বাগেরহাট আনার

    আর আমি বর্তমান ঠিকানায় ভোটার থাকতে চাই


    ওই যে নাম মিল ফাস্ট এ স্থায়ী ঠিকানায় ভোটার ওখান থেকে???????

    কি করবো একটু বলেন!!!!



    উত্তরমুছুন
    উত্তরগুলি
    1. আপনি আপনার সমস্যা সমাধানের জন্য দুইটা উপায়ে চেষ্টা করে দেখতে পারেন। একটি উপায়ে ১০০% সমস্যা সমাধান হবে এবং অপর উপায়ে আমি শিউর দিতে পারছি না তবে অবশ্যই চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

      প্রথমত, বয়রা উপজেলা নির্বাচন অফিসে গিয়ে বলবেন- আমার স্থায়ী ও বর্তমান দুইটা ঠিকানাই বয়রা, খুলনা দেয়া এবং আমি স্থায়ী ঠিকানার ভোটার হিসেব আছি। এখন আমি বয়রা খুলনাতেই থাকবো কিন্ত বর্তমান ঠিকানার ভোটার হিসেবে থাকতে চাই। একই ঠিকানায় থেকে স্থায়ী ঠিকানার ভোটার কেটে বর্তমান ঠিকানাতে আনতে পারবো কি না? যদি তারা বলে সম্ভব হবে, তাহলে তাদের পরামর্শ অনুযায়ী ভোটার এলাকা স্থানান্তরের আবেদন করে ভোটার এলাকা স্থায়ী ঠিকানা থেকে বর্তমান ঠিকানায় নিয়ে আসবেন। ভোটার এলাকা পরিবর্তন হওয়ার পর এনআইডি কার্ডের স্থায়ী ঠিকানা সংশোধনের আবেদন করবেন বয়রা অফিসেই। তাহলে স্থায়ী ঠিকানা সংশোধন হয়ে বাগেরহাট হয়ে যাবে।

      দ্বিতীয়ত, আপনার ভোটার এলাকা স্থানান্তরের আবেদন করে বাগেরহাটে নিয়ে যাবেন। স্থানান্তর হওয়ার পর বাগেরহাট নির্বাচন অফিসে এনআইডি কার্ডের স্থায়ী ঠিকানা সংশোধনের আবেদন করবেন। স্থায়ী ঠিকানা সংশোধন হয়ে গেলে পুনরায় ভোটার এলাকা স্থানান্তর করে বয়রা খুলনাতে নিয়ে আসবেন। একটু ঝামেলাপূর্ণ কাজ হলেও এই পদ্ধতিতে ১০০% কাজ হবে।

      ভোটার এলাকা স্থানান্তর করলে ভোটার এলাকা স্থায়ী ঠিকানা থেকে কেটে বর্তমান ঠিকানায় চলে আসবে। তখন আপনি সংশোধনের আবেদন করে স্থায়ী ঠিকানা ঠিক করে নিতে পারবেন।

      মুছুন
  3. ভাই ম্যাচ ফাউন্ড এর জন্য উপজেলায় গিয়েছিলাম তারা আমাকে ঢাকা থেকে AFIS রিপোর্ট নিয়ে আসতে বললো।

    উত্তরমুছুন
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন
নবীনতর পূর্বতন